নীলাভো

আমি ওয়ার্ডপ্রেস এডিটর ওপেন করে ঝাড়া দুই ঘন্টার মত বসে ছিলাম। অবশ্য ভাবার কোন কারণ নেই সেই সময়ে আমি অন্য কিছু করিনি! এডিটর খুলে অন্য সাইট দেখতে দেখতে আর ব্লগ পড়তে পড়তে ভুলেই গিয়েছিলাম যে আমার লেখার খায়েশ হইসিল হঠাৎ করে।
আমি খেয়াল করে দেখলাম আমি যাই লিখি সেই বাক্যগুলো খুব বিশ্রি রকমের বড় হয়ে যায়। আর কোন কিছু লেখার পর যখন দ্বিতীয়বার পড়ি তখন মনে হয় এই ব্যাপারগুলো এর চে বিশ্রীভাবে বোধহয় লেখা সম্ভব হতোনা।
তবে হ্যা। একটা কথা আছে। আমার যখন সত্যিকার অর্থেই লেখার মুড ওঠে, লিখতে লিখতে মনে হয় আমি লিখছি এবং এনজয় করছি, তখন আমি মনে হয় বেশ ভালোই লিখি। তবে সেরকম ফিলিংস ওঠে কালে ভদ্রে। এবং কারো খুব ভালো কোন লেখা পড়লে ঠিক হিংসা হয়না, তবে আফসোস হয়। মনে হয় এমন করে লিখার ক্ষমতা আমার থাকলে কার কি এমন ক্ষতিই বা হতো!

আজকের দিনটা খুব খারাপ গেল।

আরো নির্দিষ্ট করে বলতে গেলে কয়েকদিন ধরেই দিনগুলো বেশ ভালো যাচ্ছেনা। প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠে আবিস্কার করছি এতক্ষণ আমার মাথায় অনেকরকমের চিন্তা কয়েকমণ ওজনের পাথর চাপিয়ে দিয়ে বসে ছিল। ঘুমের ভেতরেও মাথার ভিতর কিছু শেকড় গেঁড়ে বসে থাকলে না হয় চিন্তা, না হয় ঘুম। যেটা হয় তা হচ্ছে ঘুমটা ঠিক আর ঘুম থাকেনা, শাস্তি হয়ে যায়। কয়েকদিন ধরে বেশি বেশিই এই শাস্তি ভোগ করছি। ইদানিং মাথার ভেতর এত এত কোয়েরি হচ্ছে যে বেশির ভাগ সময়ই ডাটাবেজ ডাউন করে বসে থাকি। আমার প্রচন্ড মেজাজ খারাপ নিজের ওপর। শুধু শুধু নিজের সমস্যাগুলোকে দিন দিন আরো বড় সমস্যা হিসেবে তৈরি করার জন্য।

স্যাম সেদিন বলতেসিল আমি নাকি ব্লগে সবসময় মন খারাপের কথা লিখি। আমি কোন কিছু না ভেবেই বলে দিলাম- এমন হয় কারণ মন খারাপ থাকলেই আমার কেবল ব্লগ লেখার ইচ্ছে জাগে। পরে ভাবতে গিয়ে দেখলাম ব্যাপারটা ঠিক এমনই। আমার যখন মনে হয় নিজের মন খারাপের অনুভূতিগুলো মন দিয়ে শোনার জন্য এ পৃথিবীতে একটা মানুষও বসে নেই তখন আমি কীবোর্ড টেনে নিয়ে লিখতে বসি। কারণ নিজের গল্প শোনানোর জন্য সাদা কালো অক্ষরগুলোর মত ভালো শ্রোতা বোধহয় আর কেউ হতে পারেনা.. এবং আমার ক্ষেত্রে কখনো হয়ওনা…

আজকে দুইটা ক্লাস ছিল। একটা জোকো আরেকটা বিলেত ফেরত মাস্টারমশাইয়ের। একটাতেও এটেন্ড করিনি। স্রেফ ইচ্ছা করতেসিলনা। আমার মাঝে মাঝে এমন হয়। ডিপ্রেশন লেভেলের একদম শেষ মাথায় চলে যাই। অবশ্যই সেটা ভেতর ভেতর। আর সমস্যাটা সেখানেই আসলে। আমরা সবাই মুখোশ পড়া মানুষ। অথচ আমাদের সারা জীবন যায় এই সত্যি কথাটার প্রতিবাদ করতে করতে..

আমি যতবার অর্থহীন শুনি ততবেশি গানগুলা আরো অর্থবহ লাগে। অদ্ভূত! আই জাস্ট লাভ দেয়ার লিরিকস এন্ড টিউনস্ !

এবং কালকে একটা ক্যুইজ আছে। এবং আমি কিছুই এখনো পড়িনাই।

Advertisements
This entry was posted in দিন লিপি. Bookmark the permalink.

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s