আমার ভাবনা…ভাবনার আমি

আমি যখন একা পথে হাঁটি তখন অনেক জোরে হাঁটি।কেউ দেখে থাকলে সেটাকে হাঁটা না বলে দৌড় বলেও আমার সাথে দ্বিমত পোষন করতে পারেন।আবার আমি যখন একা একা বসে ভাবি তখন সেটার অবস্থাও অনেকটা আমার হাঁটার মতই হয়।আমার ভাবনাগুলো অনেক অস্থির আর চঞ্চল।আমাকে বাইরে থেকে দেখে অবশ্য সেটা বোঝার উপায় নেই।ভাবনা গুলো একের পর এক ডালপালা মেলে ধরে,এক ডালে বেশিক্ষণ স্বস্তি পাইনা। এ ডাল ও ডাল ঘুরে বেরাই নিরলস। আমার চারপাশের সবকিছু আমাকে ভাবায়,আমিও ভাবতে কখনো আপত্তি করিনা।বিনিময়ে অনেকের হিসেবেই আমি অন্তর্মুখী।একটু চুপচাপ,নিঃসঙ্গ আর নির্জনতা প্রিয়।তাতে অবশ্য আমার তেমন কোন সমস্যা বা আপত্তি কোনটাই নেই।গোল বাঁধে তখনই ভাবনাগুলোকে যখন কলমের খোঁচায় কাগজের বুকে নামিয়ে আনতে চাই। আমার মত আমার ভাবনাগুলোও নির্জনতা প্রিয়,মনের আটকুঠুরী আর নয় দরজার পরিচিত পরিবেশেই বেশি স্বস্তি বোধ করে ওরা। জড়তা ভেঙ্গে বাইরে আসতে তাদের অনেক বেশি আপত্তি।ভাবনাগুলোকে শব্দ দিয়ে সাজাতে গেলে কলম আর বেশিদূর এগোতে চায়না তাই।আমার জোরে হাঁটা অথবা দ্রুত ভাবার প্রবণতা লিখতে গেলে কোথায় গিয়ে যে লুকায় কে জানে।ভাবনাগুলোকে যত্ন করে তুলে আনতে না পারলে ওরাও কষ্ট পায়।সেটা আর কেউ না বুঝুক,আমি বুঝি।ওদেরকে তাই খুব বেশি জ্বালাইনা। মনের কথা তাই বেশির ভাগ সময় মনেই রয়ে যায়।কাগজের বুকে নিজের গল্প বলার চেয়ে অন্যে গল্প পড়তেই বরং বেশি স্বস্তি পাই আমি।ছোট বেলা থেকে তাই বই পড়তে অসম্ভব পছন্দ করি।বড়বেলাতে এসেও সে পছন্দে তেমন একটা ভাটা পড়েনি।ব্যস্ততার স্রোতে ভাসতে ভাসতে মাঝে মাঝে হয়তোবা একটু দূরে সরে যাই ,কিন্তু কখনো হারিয়ে যাইনা।

কিন্তু আজকের কথা আলাদা।নিজের সীমাবদ্ধতা জেনেও সাহস করে লিখতে বসলাম।ভাবনাগুলোও কেন যেন তেমন একটা আপত্তি করছেনা অন্যান্য দিনের মত।চারদেয়ালের ভিতরে থেকে থেকে ওরাও বোধহয় হাপিয়ে উঠেছে।পায়ের নিচে ভেজা ঘাসের স্পর্শ নিয়ে বৃষ্টি ধোয়া রংধনু দেখতে কার না ইচ্ছে জাগে?
ভাবনাগুলোকে তাই ফিসফিসিয়ে বলি-বেরিয়ে এসো,জড়তাকে পায়ে মাড়িয়ে বেরিয়ে এসো।মুখের উপর গরাদের ছায়া ফেলে জানালার ওপাশ থেকে জ্যোৎস্না দেখার আর কতদিন।তার চেয়ে বাইরে বেরিয়ে এসো;হাস্নাহেনাকে সাথী করে একসাথে আজ চাঁদের আলোয় ভিজবো।
আমার ভাবনা কিংবা ভাবনার আমি কেউই আমার কথায় না করেনা আজ ।কলমটাকেও হঠাৎ কেমন অচেনা লাগে।খস্‌খসিয়ে হেঁটেই চলেছে।অবশ্য কেউ দেখতে পেলে সেটাকে হাঁটা না বলে দৌড় বলেও আমার সাথে দ্বিমত পোষন করতে পারেন।

Advertisements
This entry was posted in দিন লিপি. Bookmark the permalink.

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s